করোনা থেকে সুস্থ হলো লাখো মানুষ

0 ১৩১

করোনাভাইরাস সারাবিশ্বে মহামারি আকার ধারণ করেছে। এতে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপন। ভাইরাসটি অত্যন্ত ছোঁয়াচে হওয়ায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। সংক্রমণ এড়াতে প্রতিনিয়ত বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন শহর, পর্যটন স্পটসহ যেকোনো ধরণের জনসমাগমপূর্ণ অঞ্চল।

তবে ভাইরাসটিতে অন্যান্য ফ্লুর চেয়ে মৃতের হার অনেক কম। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে যু্কদের মধ্যে মৃত্যের হার ১ ভাগ আর বৃদ্ধদের মধ্যে ৩ ভাগ, যেখানে সার্সে মৃতের হার ছিল ১০ ভাগ। এ পর্যন্ত এ ভাইরাসটি থেকে সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ২ হাজার ৪২৯ জন।

সরাবিশ্বে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৮১ হাজার ৭৪৪ জন এবং মারা গেছেন ১৬ হাজার ৫৫৮ জন।বাংলাদেশেও এর প্রদুর্ভাব শুরু হয়ে গেছে। এ পর্যন্ত ভাইরাটিতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৩৩ জন। সুস্থ হয়েছেন ৫ জন। বাংলাদেশের মতো জনবহুল এই দেশে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়লে ভয়াবহ আকার ধারণ করবে। রোগটি প্রতিরোধ করতে সচেষ্ট রয়েছে সরকার।

বিদেশফেরত প্রবাসীদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। বিদেশে থেকে ফেরত আসার পর হোম কোয়ারেন্টাইনে না থাকলে জরিমানা করা হচ্ছে।করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ইতালিতে। ইউরোপের এই দেশটিতে মৃত্যুর মিছিল থামছেই না। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে ৬০১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে সেখানে মৃত্যু ৬ হাজার ৭৭।

দেশটিতে নতুন করে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪ হাজার ৭৮৯। ফলে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬৩ হাজার ৯২৭। এছাড়া চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৭ হাজার ৪৩২ জন।

এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে করোনার উৎপত্তিস্থল চীনে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮১ হাজার ১৭১ এবং মারা গেছে ৩ হাজার ২৭৭ জন।

0 0 vote
Article Rating
আরও পড়ুন
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x