,
সংবাদ শিরোনাম :
» « দেখিয়ে দাও তুমি কেন এক নম্বর, সাকিবকে রোডস» « অবশেষে ধ্যান ভেঙে গুহা ছাড়লেন মোদি» « যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে বেইজিংয়ে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী» « বাগেরহাটে বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা, নিহত ৫» « জ্যান্ত কবর দেয়া শিশুকে মাটি খুঁড়ে উদ্ধার করলো কুকুর» « রাজধানীতে পৃথক অভিযানে অজ্ঞানপার্টির ২৩ সদস্য আটক» « আয়ারল্যান্ডকে উড়িয়ে বাংলাদেশের ফাইনাল ‘প্রস্তুতি’» « ময়মনসিংহ মেডিক্যালের ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি, ফটকে তালা ঝুলিয়ে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ» « দেশের পথে ওবায়দুল কাদের» « প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ১৭ অভিযুক্ত পাওয়া গেলো ছাত্রলীগের কমিটিতে

কলেজছাত্রী ঝুমাকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় বাহারের স্বীকারোক্তি

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার রসুলপুর গ্রামের কলেজছাত্রী ঝুমা আক্তারকে (১৯) কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন মামলার প্রধান আসামি বাহার উদ্দিন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জকিগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. খাইরুল আমিনের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি দেন বাহার। পরে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ইমরোজ তারেক বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় জকিগঞ্জের সুলতানপুর ইউনিয়নের মির্জারচক গ্রামের একটি হাওর থেকে বাহারকে গ্রেফতার করা হয়। বিকেলে আদালতে হাজির করলে তিনি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। বিচারক জবানবন্দি গ্রহণ করে বাহারকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

রোববার ছোট ভাইকে ভর্তি করার জন্য মাকে সঙ্গে নিয়ে স্থানীয় একটি স্কুলে যাচ্ছিলেন জকিগঞ্জ উপজেলার রসুলপুর গ্রামের কলেজছাত্রী ঝুমা আক্তার। পথে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার ওপর হামলা চালান রসুলপুর গ্রামের বাহার উদ্দিন। ঝুমার পেট ও হাতে কোপ দেন বাহার। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ঝুমাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ঝুমার অভিযোগ, বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তার ওপর হামলা করেন বাহার।

এ ঘটনায় সোমবার বাহারকে প্রধান আসামি করে মামলা করেন ঝুমার মা করিমা বেগম। পরে পুলিশ প্রধান আসামি বাহারের বড় ভাই নাসির উদ্দিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com