নিকাব নিষিদ্ধ হলেও ফ্রান্সে মাস্ক পরা এখন আবশ্যক!

ইউরোপের প্রথম দেশ ফ্রান্স। সেদেশে আইন করে মেয়েদের ইসলামি মুখ ঢাকা পোশাক নিকাব নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। করোনা আতঙ্কে এবার সেই ফ্রান্সই মুখ না ঢেকে চলাফেরায় ১৫০ ইউরো জরিমানার নির্দেশ দিয়েছে। যদিও সরকারি ভাবে ফ্রান্সে নিকাবের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা ওঠেনি। নারীদের মুখ ঢাকা পোশাক নিকাব যা মুখ ঢাকলেও শুধু চোখ দুটি খোলা থাকে, ২০১১ সালে ফ্রান্সে তা আনুষ্ঠানিকভাবে নিষিদ্ধ করা হয়।

কিন্তু এখন বাধ্য হয়েই ফ্রান্স সরকার সকলকে মুখ ঢাকা পোশাক বা মাস্ক ব্যবহার করতে বলছে। সম্প্রতি প্যারিস ফ্যাশন সপ্তাহে মডেলরা মুখোশ পরেই অংশগ্রহণ করেন। মডেলদের পরিহিত মুখোশগুলো মুসলিম নারীরা সাধারণত নিকাব হিসাবে ব্যবহার করেন। শুধু ফ্রান্সেই নয়, বিশ্বের অনেক দেশে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় মডেল থেকে শুরু করে সবাই মুখোশ পরছেন। ফ্রান্স সবার জন্য মুখোশ পরাকে বাধ্যতামূলক করতে ১৫০ ইউরো জরিমানার আইন জারি করেছে। অথচ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আগে ফ্রান্সে নিকাব পরা নিষিদ্ধই রয়ে গেছে।
সূত্র : পূবের কলম

0 0 vote
Article Rating
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x