বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস আজ

বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস আজ। ‘পরিবার ও ডায়াবেটিস’ ২০১৮-২০১৯ সালের স্লোগান। পৃথিবীর সব কয়টি দেশ, পরিবার ও ডায়াবেটিস-এ স্লোগান দিয়ে বিশ্বব্যাপী ডায়াবেটিস দিবস পালন করছে। ১৪ নভেম্বর এ দিবস পালিত হয়ে আসছে।

ছবিঃ সংগৃহিত

দুই বছরের জন্য স্লোগানটি নির্বাচিত করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, বিশ্ব ডায়াবেটিস সংস্থার সঙ্গে তাল মিলিয়ে সব দেশের নীতিনির্ধারকমণ্ডলী তাদের দেশের স্বাস্থ্যসেবা পরিকল্পনা উন্নয়ন কাঠামো তৈরি করবে।

স্লোগানের উল্লেখযোগ্য দিক : ডায়াবেটিস একটি মাত্র আলোচিত সর্বব্যাপী রোগ যা পৃথিবীতে মহামারী আকারে বিরাজ করছে। ২০১৭ সালে প্রতি ১১ জন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের একজন ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ছিল (মোট ৪১৫ মিলিয়ন)। আর বিশ্বজুড়ে প্রতি দুজন ডায়াবেটিস রোগীর একজন রয়ে গেছে। প্রতি ৬টি সন্তান প্রসবের ১টি মায়ের ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। পৃথিবীর মানুষের স্বাস্থ্যখাতের মোট ব্যয়ের ১২%-এর বেশি চিকিৎসার ব্যয় হলেও চার ভাগের তিন ভাগ ডায়াবেটিস রোগী নিম্ন অর্থবিত্তের দেশগুলোতে বসবাস করেন।
ডায়াবেটিস যে পরিবারের ওপর গোত্রীয় প্রভাব বিস্তার করে এবং এর জন্য পরিবারের সব সদস্যের সহযোগিতা প্রয়োজন। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে প্রতি রোগীর পরিবারের সদস্যের অংশ জরুরি। ডায়াবেটিস রোগীর চিকিৎসা ব্যয়ভার পরিবারেরই একটি স্বাস্থ্য ব্যয়। যারা ইনসুলিন নিচ্ছেন ও নিয়মিত রক্তের গ্লুকোজ মাপছেন তাদের এ খরচ নিত্যনৈমিত্তিক পরিবারের খরচের অর্ধেকের সমান। তাই প্রতিটি ডায়াবেটিস রোগীর ক্রয় সাধ্যের মধ্যে ডায়াবেটিস চিকিৎসা সামগ্রীর প্রাপ্যতা নিশ্চিত করা বা চিকিৎসা নিশ্চিতকরণের প্রয়োজন, উদারতা প্রয়োজন।

কিছু গবেষণা থেকে দেখা গেছে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় নিতে গেলে পরিবারের সদস্যদের সহযোগিতা প্রয়োজন এবং যারা ডায়াবেটিস শিক্ষা পেয়েছেন তারাই সবচেয়ে উপযোগী সদস্য। তাই শুধু রোগীকে নয়, ডায়াবেটিসের রোগীর পরিবারের সদস্যদের এ বিষয়ে গ্রহণযোগ্য শিক্ষা প্রদানে উদ্যোগী হতে হবে। ডায়াবেটিস রোগীদের মানসিক অবস্থার উন্নতির জন্য পরিবারের সদস্যদের হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। সবচেয়ে বড় কথা, হতে হবে সচেতন। কারণ, সচেতনতা ডায়াবেটিসের জটিলতা কমাতে পারে।

0 0 vote
Article Rating
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x